Breaking

Sunday, April 19, 2020

স্পেন ঔ পর্তুগালে অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে চিন্তায় আচ্ছে প্রবাসীরা


জানা গেছে স্পেনে ২০ হাজার ছারিয়েছে মৃতের সংখ্যা। আর ৭শ জন মারা গেছে পর্তুগালে। এই ৩ দফা লকডাউন করার জন্য দেশের ঔ দেশের মানুষ এর অনেক সমস্যা হচ্ছে। দিন দিন দেশের অর্থনৈতিক অবস্তা খারাপ হয়ে যাচ্ছে এই করোনাভাইরাস এর কারণে। স্পেন ঔ পর্তুগালে অনেক সমস্যা তে আছে বাংলাদেশী প্রবাসী। করোনাভাইরাস এর কারণে সব কলকারখানা ঔ প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় সমস্যা তে পরেছে বাংলাদেশী প্রবাসিরা। কিন্তু আক্রান্ত ঔ মৃত্যু সংখ্যা কিছুটা কমতে শুরু করেছে।



স্পেন ঔ প্রতিবেশী দেশ পর্তুগালে চলছে তৃতীয় দফা লকডাউন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে এই দুই দেশ বহনকারী কিছু ফ্লাইট বন্ধ করে দিছে। আরও অনেক পদক্ষেপ নিয়েছে এই দুই দেশ। আমার মতে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সব দেশ গুলোতে কিছু পদক্ষেপ নিতে হবে, তাহলে এই করোনাভাইরাস থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভাব। স্পেন ঔ পর্তুগাল কিছু পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য কমতে শুরু করেছে মৃত্যুর সংখ্যা। কিন্তু এই কঠিন পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য অর্থনৈতিক সমস্যা পড়েছে এই দুই দেশ। এই সমস্যার মধ্যে পরেছে কিছু বাংলাদেশী প্রবাশী। করোনাভাইরাস এর কারণে তারা এখন বেকার।




প্রবাসীরা বলেন, এখানে সবাই চিন্তিত কিন্তু সবচে চিন্তায় আছে বাংলাদেশি প্রবাসীরা। তারা বলেন, আমরা যারা বাংলাদেশী প্রবাসী আমরা সবাই কাজের ওপর নির্ভর করে এখানে আছি। তারা বলে করোনাভাইরাস এর কারণে এখন অনেক বাংলাদেশি মানুষ এখনে, যাদের এখন কোন কাজ নাই। তারা এখন পুরুপুরি বেকার। তারা বলে যদি ৬ মাস বা ১ বছর এটা থাকে তাহলে অনেক বড় সমস্যাতে পরতে হবে তাদের।

No comments:

Post a Comment