Breaking

Saturday, May 16, 2020

বিশ্বে আক্রান্ত ছাড়াল ৪৪ লাখ প্রাণহানি ৩ লাখ ছুঁই ছুঁই

মৃতের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েই চলেছে মহামারি করোনাভাইরাসের ছোবলে। এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী ২ লাখ ৯৮ হাজার ১৬৫ জন মারা গেছেন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে। এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী ৪৪ লাখ ২৯ হাজার ২২৩ জনের শরীরে এ ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।



করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের সংখ্যা ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার বৃহস্পতিবার (১৪ মে) সকাল ৯টা পর্যন্ত এ সংখ্যা নিশ্চিত করেছে।জানা গেছে যে এরইমধ্যে ২১২টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাস। এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৬ লাখ ৫৮ হাজার ৯৬৯ জন। জানা গেছে ২৪ লাখ ৭২ হাজার ৮৯ জন বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছে সারা বিশ্বে। জানা গেছে যে এদের মধ্যে ২৪ লাখ ২৬ হাজার ১৬৯ জনের শরীরে মৃদু সংক্রমণ থাকলেও ৪৫ হাজার ৯২০ জনের অবস্থা গুরুতর বলে জানা গেছে। সারা বিশ্বে ভাইরাসটির আক্রমণে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা প্রভাবশালী দেশ যুক্তরাষ্ট্রের। জানা গেছে যুক্তরাষ্ট্রে ৮৫ হাজার ১৯৭ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে এখন পর্যন্ত। যুক্তরাষ্ট্রে মোট ১৪ লাখ ৩০ হাজার ৩৪৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন।







জানা গেছে সারা বিশ্বে মৃত্যুর তালিকায় এর পরের অবস্থানে রয়েছে ফ্রাস্ন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২৭ হাজার ৭৪ জনের। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ লাখ ৭৮ হাজার ৬০ জন আক্রান্ত হয়েছে। জানা যাই এদিকে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে রাশিয়ায়। সারা বিশ্বে আক্রান্তের হিসাবে তৃতীয় অবস্থানে উঠে এসেছে দেশটি। ২ লাখ ৪২ হাজার ২৭১ জন এখানে আক্রান্ত হয়েছেন। দেশটিতে ২ হাজার ২১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ১ লাখ ৭৪ হাজার ৯৮ জন মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন জার্মানিতে। এছাড়া ও জানা গেছে ১ লাখ ৭৪ হাজার ৯৮ জন মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন জার্মানিতে। মৃত্যু হয়েছে ৭ হাজার ৮৬১ জনের। ১ লাখ ৪৩ হাজার ১১৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন তুরস্কে। এখানে প্রায় ৪ হাজার মানুষ মারা গেছে। আক্রান্তের সংখ্যা ৭২ হাজার ২৭৮ জন, মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ৩০২ জনের, দেশটির নাম কানাডা। চীনে ভাইরাসটি প্রথম শনাক্ত হয়। ভাইরাসে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৮২ হাজার ৯২৯ জন এবং মারা গেছেন ৪ হাজার ৬৩৩ জন। এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে ইরানে। ১ লাখ ১২ হাজার ৭২৫ জন এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে। দেশটিতে ৬ হাজার ৭৮৩ জন মারা গেছে।

No comments:

Post a Comment