Breaking

Tuesday, July 14, 2020

লাখ ছাড়াল করোনা থেকে সুস্থ রোগীর সংখ্যা


গেল ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন লক্ষাধিক, গেল ২৪ ঘণ্টায় ৪ হাজার ৯১০ জনসহ দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত।
বর্তমানে দেশে সুস্থ রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ১ লাখ ৩ হাজার ২২৭ জন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দেয়া সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী।
অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা, মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) করোনাভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন বুলেটিনে এ তথ্য জানিয়েছেন।

অনলাইন বুলেটিনের অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন যে গেল ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে ৩ হাজার ১৬৩ জনের শরীরে ভাইরাস শনাক্ত ও ৩৩ জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছেন তিনি।

গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৯৮৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয় করোনাভাইরাস শনাক্তে এই খবর দেন অনলাইন বুলেটিনের অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। নাসিমা সুলতানা জানান, ১৩ হাজার ৪৫৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এ নিয়ে দেশে মোট ৯ লাখ ৬৬ হাজার ৪০০টি নমুনা পরীক্ষা করা হলো। অনলাইন বুলেটিনের অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে আরও ৩ হাজার ১৬৩ জনের দেহে। ফলে ১ লাখ ৯০ হাজার ৫৭ জন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল। আক্রান্তদের মধ্যে মারা গেছেন আরও ৩৩ জন বলেন অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। জানা গেছে যে এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৪২৪ জনের। জানা গেছে যে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও ৪ হাজার ৯১০ জন। অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন ফলে মোট সুস্থ রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ১ লাখ তিন হাজার ২২৭ জনে। 



আর অন্য দিকে করোনাভাইরাসে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১ কোটি ৩২ লাখ ৪০ হাজার জন মানুষ। আর ৫ লাখ ৭৫ হাজার ৬০১ জনের প্রাণ গেছে এই করোনাভাইরাসে। এখনও আবিষ্কার হয়নি এই ভাইরাস নিয়ন্ত্রণের কোন টিকা।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক পরিসংখ্যান পর্যালোচনা বিষয়ক প্রতিষ্ঠান ওয়াল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী জানা গেছে যে রোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর হিসাবে শীর্ষে রয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। ৩৪ লাখ ৭৯ হাজার ৪৮৩ জন মানুষ দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে। আর ১ লাখ ৩৮ হাজার ২৪৭ জনের প্রাণ চলে গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক পরিসংখ্যান পর্যালোচনা বিষয়ক প্রতিষ্ঠান ওয়াল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী জানা যাই যে এরপর রয়েছে ব্রাজিল। দেশটিতে ১৮ লাখ ৮৭ হাজার ৯৫৯ জন মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। আর ৭২ হাজার ৯২১ জন মানুষ মারা গেছে।

মৃত্যু হয়েছে ৪৪ হাজার ৮৩০ জনের আর দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৯০ হাজার ১৩৩ দেশটি হচ্ছে তৃতীয় স্থানে যুক্তরাজ্য।

No comments:

Post a Comment