Breaking

Tuesday, July 21, 2020

যুক্তরাজ্য সরকারের চুক্তি করোনা ভ্যাকসিনের ডোজ নিতে


যে জন্য এ সংক্রান্ত প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করেছে যুক্তরাজ্য সরকার তা হল মহামারি করোনাভাইরাসের জন্য প্রস্তুত হতে যাওয়া একটি ভ্যাকসিনের ৯০ মিলিয়ন ডোজ নেয়ার জন্য।

এ ভ্যাকসিন বাজারে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান বায়োনেটেক এবং ফাইজারের পাশাপাশি ফার্ম ভাল্নেভার সমন্বিত চেষ্টায়। চুক্তি হচ্ছে ভ্যাকসিন গ্রহণের জানিয়েছে বিবিসি। বিবিসি জানিয়েছে যে তবে এ ভ্যাকসিন যে করোনার বিরুদ্ধে কাজে দেবে তা এখনো পুরাপুরি নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না, তবে আমাদের জীবন বাঁচাতে এদের মধ্যে একটি ভ্যাকসিন কার্যকর ভূমিকা পালন করতে পারে বলে জানাই বিবিসি।

বিবিসি জানিয়েছে যে চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে প্রথম করোনার অস্তিত্ব শনাক্ত হয়, এরপর তা সারা বিশ্বেই ছড়িয়ে যায়। করোনার প্রকোপ এর পর থেকেই বিভিন্ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান ভ্যাকসিনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানাই বিবিসি। জানা গেছে যে এরই মধ্যে ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল সম্পন্ন হয়েছেতির ২০টিরও বেশি।

আমাদের অনেক প্রতিশ্রুতিশীল প্রতিষ্ঠান রয়েছে যেগুলো ভ্যাকসিন আনার ক্ষেত্রে বেশ এগিয়ে আছে আর, এটাই বাস্তবতা এ কথা কেট বিংহাম যুক্তরাজ্য সরকারের ভ্যাকসিন টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান বলেন। কেট বিংহাম যুক্তরাজ্য সরকারের ভ্যাকসিন টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান বলেন যে তবে আমি এখনো বেশি আশাবাদী হওয়ার পক্ষে যাইনি। কেট বিংহাম যুক্তরাজ্য সরকারের ভ্যাকসিন টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান বলেনএই বছরের শেষের দিকে হয়তো করোনার ভ্যাকসিন বাজারে আসতে পারে।
কেট বিংহাম যুক্তরাজ্য সরকারের ভ্যাকসিন টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান আরও বলেন যে তবে গবেষকরা মনে করছেন এ ভ্যাকসিন বিস্তৃত আকারে অর্থ্যাৎ সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছানোর জন্য আরও বেশ কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে।



জানা গেছে যে, আফ্রিকা মহাদেশে দ্রুত করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে। এ বিষয়ে ডব্লিউএইচওর জরুরি কর্মসূচির প্রধান মাইক রায়ান বলেছেন।ডব্লিউএইচওর জরুরি কর্মসূচির প্রধান মাইক রায়ান বলেছেন আমাদের উচিত বিষয়টিকে গুরুত্বসহকারে নেয়া। ডব্লিউএইচওর জরুরি কর্মসূচির প্রধান মাইক রায়ান বলেন,যেসব দেশে সংক্রমণ বাড়ছে সেগুলোর অনেক দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থাই ভঙ্গুর।করোনার বিরুদ্ধে লড়তে অনেক দেশেরই জরুরি সাহায্য-সহযোগিতা প্রয়োজন বলে জানান ডব্লিউএইচওর জরুরি কর্মসূচির প্রধান মাইক রায়ান।

No comments:

Post a Comment