Breaking

Monday, July 27, 2020

জানা গেছে যে সবার আগে ইংল্যান্ড এর গ্যালারিতে দর্শকও ফেরালো


খুশির খবর যে ইংল্যান্ড লকডাউনকে পাশ কাটিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে মাঠে ফিরিয়েছে। জানা গেচঝে যে খেলাটির জন্মদাতা দেশটি এবার গ্যালারিতে ফেরালো দর্শকও।
ইংলিশ কাউন্টি ক্রিকেট ভক্তরা লকডাউনের পর এই প্রথম মাঠে বসে ক্রিকেট ম্যাচ উপভোগ করলো। জানা গেছে যে (ইংল্যান্ডের স্বাস্থ্যবিভাগ) লন্ডনের 'দ্য ওভালে' সারি বনাম মিডলসেক্সের মধ্যকার ম্যাচে সীমিত পরিসরে দর্শক প্রবেশের অনুমতি দিয়েছিলো। দেখা গেছে যে ক্রিকেট গ্যালারিতে ফিরতে পেরে দারুণ উচ্ছ্বসিত দর্শক। জানা যায় যে উচ্ছ্বসিত দর্শক আশাবাদী তারা যে দ্রুত আন্তর্জাতিক ম্যাচেও প্রবেশের ব্যাপারে।

আমরা সবাই জানি যে ক্রিকেটের পুনর্জন্ম ঘটিয়েছে ইংল্যান্ডের মাটিতে (উইন্ডিজরা দাওয়াতে) এসে। অথচ খোদ ইংরেজ ক্রিকেট প্রেমীদের সেই ঐতিহাসিক ক্ষণটার সাক্ষী হওয়া হলো না।নিশ্চয় কুঁড়ে কুঁড়ে খাচ্ছিলো প্রাণের ২২ গজে উইলো খণ্ডের সঙ্গে চর্মগোলকের জম্পেশ লড়াই গ্যালারিতে বসে দেখতে না পারার আক্ষেপটা। জম্পেশ লড়াই গ্যালারিতে বসে দেখতে না পারার আক্ষেপটা নিশ্চয় কুঁড়ে কুঁড়ে খাচ্ছিলো, তবে আক্ষেপটা মিটলো এবার। ক্রিকেটের পাঁড় ভক্ত যারা, এই দিনটার অপেক্ষায় প্রহর গুণছিলেন তারা। জানাআ যায় যে ইংলিশ কাউন্টির সারে আর মিডলসেক্সের মধ্যকার ম্যাচ দিনটার অপেক্ষায় প্রহর গুণছিলেন ক্রিকেটের পাঁড় ভক্ত যারা। তবে জানা যায় যে মাত্র ১ হাজার দর্শক মাঠে বসে মিটিয়েছেন চোখের ক্রিকেট পিপাসা, যদিও (দ্য ওভাল) সাড়ে ২৫ হাজার দর্শক ধারণ করতে সক্ষম। জানা যায় যে এই পাইলট পাইলট প্রজেক্ট, মূলত স্বাভাবিকত্ব ফেরাতে।উপস্থিত ১ হাজার দর্শক দুই ক্লাবের সঙ্গে জড়িত বলে জানাআ যায়।
"আমরা খুবই সন্তুষ্ট" এ কথা সারে কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের প্রধান নির্বাহী (রিচার্ড গোল্ড) বলেন। সারে কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের প্রধান নির্বাহী রিচার্ড গোল্ড, অবশেষে সমর্থকরা মাঠে আসতে পারছে বলে খুবই সন্তুষ্ট। সারে কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের প্রধান নির্বাহী রিচার্ড গোল্ড বলেন যে লকডাউনের কারণে অনেকেই যদিও আসতে পারছেন না, তারপরও স্বাভাবিক জীবনে ফেরার পথে এটা একটা বড় ধাপ। সারে কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের প্রধান নির্বাহী রিচার্ড গোল্ড বলেন এতো দিন বাদে ক্রিকেট মাঠে একটা দিন কাটাতে পারাই বিশেষ।



সারে কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের প্রধান নির্বাহী রিচার্ড গোল্ড বলেন, মানা হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধ্‌, পড়তে হচ্ছে মাস্ক, সামাজিক দূরত্ব রক্ষাও অবধারিত। সারে কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের প্রধান নির্বাহী রিচার্ড গোল্ড বলেন, খাবার কিংবা টিকিট কাউন্টারে নেয়া হচ্ছে কেবল ডিজিটাল ডিজিটাল পেমেন্ট, যেনো টাকা আদান প্রদান না করতে হয় তার জন্য। তবে এভাবে দর্শক ফিরালেও, কোনো ইভেন্ট আয়োজন কি সম্ভব। সারে কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের প্রধান নির্বাহী রিচার্ড গোল্ড বলেন, বলতে গেলে একেবারে হাতে গোনা কিছু দর্শক প্রবেশ করতে পেরেছে। তবে ব্যবসায়িক দিক বিবেচনায় এভাবে ইভেন্ট আয়োজন করাটা লোকসানের বলে মনে করেন সারে কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের প্রধান নির্বাহী রিচার্ড গোল্ড। কয়েক সপ্তাহ বা কয়েক মাস পর সব ঠিক হয়ে যাবে বলে মনে করেন সারে কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের প্রধান নির্বাহী রিচার্ড গোল্ড।

No comments:

Post a Comment