Breaking

Wednesday, July 8, 2020

করোনার উর্ধ্বগতি কোনোভাবেই ঠেকানো যাচ্ছে না "ভারতে"


করোনার উর্ধ্বগতি কোনোভাবেই ঠেকানো যাচ্ছে না ভারতে। গুজরাটের পরই লাফিয়ে বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যেও তার সাথে আছে মহারাষ্ট্র, দিল্লি, তামিলনাড়ুতেঁও করোনাভাইরাস লাফিয়ে বাড়ছে।

সাত লাখের বেশি মানুষ দেশটিতে এখন পর্যন্ত ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। ২০ হাজার ছাড়িয়েছে মৃত্যুর সংখ্যা।

২০ হাজারের নিচে নামেনি,চলতি সপ্তাহে ভারতের গড় করোনা সংক্রমণ। জানা গেছে ভারতে ৪৩০ জন রোজ মৃত্যুর হার। জানা গেছে ৩০ জানুয়ারি দেশটিতে প্রথম করোনা শনাক্ত হয়েছে। ৩০ জানুয়ারি দেশটিতে প্রথম করোনা শনাক্ত হওয়ার পর থেকেই মহারাষ্ট্র, গুজরাট, দিল্লি এবং তামিলনাড়ুতে সংক্রমণ লাফিয়ে বাড়তে থাকে।

ঠিক একইভাবে করোনা পরিস্থিতি অবনতি হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যেতেও। শেষ ২৪ ঘণ্টায় প্রায় ৯শ আক্রান্তের পাশাপাশি ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে রাজ্যটিতে।



জানা গেছে "মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়" এমন বাস্তবতায় রাজ্যে নতুন প্লাজমা হাসপাতাল এবং করোনা শনাক্ত নিয়ে রাজ্য সরকারের নতুন অ্যাপ উদ্বোধন করেছেন। মালোচনা করেছেন বিরোধী নেতারা আক্রান্তদের সঠিক চিকিৎসা দিতে পারছে না বলে।

রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, মমতা ব্যানার্জি কলকাতা থেকে তেমন একটা বের হন না এ কারণে বুঝতে পারেন না। রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ, মমতা ব্যানার্জিকে আরও বলেন যে এখন তো করোনা হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে, পুলিশ প্রসাশন, স্বাস্থ্য বিভাগ, শিক্ষা বিভাগ কোনো কিছু নিয়ন্ত্রণে নেয় তার। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে এখন পর্যন্ত মারা গেছে প্রায় ৯০০ জন। আর এখন পর্যন্ত ২৩ হাজার মানুষের দেহে ভাইরাসটি সনাক্ত হয়েছে।
আরও জানা গেছে যে ভারতের কালো বাজারে করোনার ওষুধ যাচ্ছে।


এর মধ্যেই কোটি ছাড়িয়েছে এ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। মৃত্যু হয়েছে পাঁচ লক্ষাধিক। জানাআ গেছে যে ইতোমধ্যে ভারতে করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে বিশ্বে তৃতীয় অবস্থানে।

যেখানে বিজ্ঞানীরা দিনরাত এক দিচ্ছেন এই করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কারের জন্যে। আর জানা জাচ্ছে যে ভারতের রাজধানী দিল্লির কালো বাজারে চড়া মূল্যে করোনা ভ্যাকসিন বিক্রি করছে অসাধু ব্যক্তিরা। বিবিসি’র এক অনুসন্ধানী তদন্তে উঠে এসেছে এই তথ্য এক সম্প্রতি ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম।

সম্প্রতি ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসি’র এক অনুসন্ধানী তদন্তে উঠে এসেছে ভারতে ব্যবহৃত হওয়া দুটি জীবন রক্ষাকারী ভ্যাকসিন রেমডিসিভির এবং টসিলিজুমাব-এর চাহিদা এতটাই বেড়ে গেছে যে সেগুলো এখন আর খোলা বাজারে পাওয়া যাচ্ছে না। বিবিসি অভিনব শর্মা নামে একজনের সাথে কথা বলেছেন যার চাচা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত।

জানা গেছে যে রেমডিসিভির-এর সরকারি বাজার মূল্য ৫,৪০০ রুপি। কিন্তু কালোবাজারিরা এর জন্য ৩০ হাজার থেকে ৩৮ হাজার রুপি পর্যন্ত দাম হাঁকছে।



ভারতে এখন পর্যন্ত মোট ৭ লাখ ২৩ হাজার ১৯৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২০ হাজার ২০১ জনের, "আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী"।

No comments:

Post a Comment