Breaking

Sunday, October 18, 2020

নিরাপদ ও অ্যান্টিবডি তৈরিতে সক্ষম "সিনোফার্মের ভ্যাকসিন"



নিরাপদ এবং রোগীদের দেহে অ্যান্টিবডি তৈরিতে সক্ষম, চীনের রাষ্ট্রীয় কোম্পানি সিনোফার্মের তৈরি করোনার ভ্যাকসিন। গবেষণার জন্য সিনোফার্মের ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়, ১৮ থেকে ৮০ বছর বয়সীদের শরীরে। এবং তাদের সবার শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরির প্রমাণ পাওয়া গেছে।


ভারতে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সম্ভাব্য যে ভ্যাকসিনের পরীক্ষা চলছে, তা ব্যবহারের অনুমোদন পেলে প্রথম দফায় ৩০ কোটি ভারতীয় ভ্যাকসিন পাবেন। এই কথা টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। আরও বলা হয়েছে যাদের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তাদেরকেই প্রথম ভ্যাকসিন দেয়া হবে। দেশটিতে বর্তমানে মানবদেহে তিনটি ভ্যাকসিনের পরীক্ষা চালানো হচ্ছে।

নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রে অনুমোদন পেতে পারে দুটি করোনা ভ্যাকসিন। প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ঘিরে দ্রুত আনুষ্ঠানিকতা শেষ করছে কোম্পানিগুলো। তবে নিউইয়র্কের গভর্নর জানিয়েছেন ভ্যাকসিন এলেও তা আগে পরীক্ষা করবে তার প্রশাসন। তারা কার্যকারিতা নিশ্চিত করার পরই তা মানবদেহে প্রয়োগের অনুমোদন দেয়া হবে।

করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে আশার আলো দেখাচ্ছে রাশিয়া। দেশটির সঙ্গে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি দেশ ভ্যাকসিনের ডোজ পেতে চুক্তি করেছে। তবে অনেক দেশ রাশিয়ার কাছ থেকে ভ্যাকসিন নিলেও এ তালিকায় থাকবে না ইউক্রেন বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। রাশিয়ার ভ্যাকসিন মানবদেহের জন্য নিরাপদ প্রমাণিত হয়নি বলেও দাবি করেছে কিয়েভের মার্কিন দূতাবাস।

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৫ হাজার ৬৬০ জনে। এ ছাড়া নতুন করে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে আরও ১ হাজার ২৭৪ জনের দেহে। এখন পর্যন্ত দেশে মোট শনাক্ত হলো ৩ লাখ ৮৮ হাজার ৫৬৯ জন করোনা রোগী। সংস্থার অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, এ দিন সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৬৭৪ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৩ লাখ ৩ হাজার ৯৭২ জন। এর আগে শনিবার (১৭ অক্টোবর) দেশে আরও ১ হাজার ২০৯ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। এছাড়া আক্রান্তদের মধ্যে মারা যান আরও ২৩ জন।

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ কোটি ৯৯ লাখ ৫৭ হাজার ছাড়িয়েছে। আর এ মহামারিতে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১১ লাখ ১৪ হাজার। করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সংখ্যা ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, রোববার (১৮ অক্টোবর) সকাল পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনা আক্রান্ত হয়েছে মোট ৩ কোটি ৯৯ লাখ ৫৭ হাজার ৪৩৮ জন। আর মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১১ লাখ ১৪ হাজার ৬৩৩ জন। সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন দুই কোটি ৯৮ লাখ ৮৫ হাজার ৭৭১ জন। 





বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে, ২ লাখ ২৪ হাজার ২৮২ জনের। বিশ্বে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যাও এই দেশটিতে। এ নিয়ে ৮৩ লাখ ৪২ হাজার ৬৬৫ জন এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন। আর দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৭৪ লাখ ৯২ হাজার ৭২৭ জন এবং মৃত্যু হয়েছে এক লাখ ১৪ হাজার ৬৪ জনের। তৃতীয় অবস্থানে থাকা লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় ৫২ লাখ ২৪ হাজার ৩৬২ জন আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে এক লাখ ৫৩ হাজার ৬৯০ জনের।

No comments:

Post a Comment